কুলাউড়া থানায় অনাবাদি জমিতে ওসির সবজি চাষ

প্রকাশিত: ৪:০৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০২২

কুলাউড়া থানায় অনাবাদি জমিতে ওসির সবজি চাষ

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:

পুলিশ সার্বক্ষণিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের কাজে নিয়োজিত থাকলেও মৌলভীবাজারের কুলাউড়া থানা পুলিশ নিয়মিত কাজের পাশাপাশি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

‘এক ইঞ্চি জমিও যেন অনাবাদি না থাকে’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন নির্দেশনার পরই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুছ ছালেকের নেতৃত্বে থানা কমপ্লেক্সের চারপাশের পরিত্যক্ত জমিতে বিভিন্ন প্রকারের শাকসবজি ও ফল বাগান তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যা এখন বাস্তবায়নের পথে।

সরেজমিন থানা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, থানা চত্বরে প্রায় ৫০ শতক পরিত্যক্ত জায়গা পরিষ্কার করে বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ করার উদ্যোগ নিয়েছেন ওসি। এতে লাউ, বেগুন, মিষ্টিকুমড়া, পালংশাক, লালশাক, পেঁয়াজ, মরিচ, ফুলকপি, বাঁধাকপি, গাজর, শালগম, মুলা, ধনেপাতাসহ ২০ ধরনের শাকসবজির চাষ করা হয়েছে। অবসর সময়ে ওসিসহ থানার পুলিশ সদস্যরাই সবজি ক্ষেত দেখাশোনা করেন।

ব্যতিক্রমী উদ্যোগ বাস্তবায়ন হলে থানা কমপ্লেক্সের সৌন্দর্য বহুগুণে বৃদ্ধি পাবে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয়রা।

উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়ন থেকে থানায় কাজে আসা এক যুবক বলেন, থানার চারিদিকে বিভিন্ন প্রকার শাকসবজির চাষ করার উদ্যোগ নিয়েছেন ওসি- এটি দেখে খুব ভালো লাগলো। কেননা যেসব জায়গায় সবজির বাগান করা হয়েছে- আগে তো অনেক নোংরা ছিল সেখানে। ওসির এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন হলে থানার সৌন্দর্য আরও বৃদ্ধি পাবে।

ওসি মো. আব্দুছ ছালেক বলেন, জেলা পুলিশ সুপার নির্দেশনা রয়েছে- থানা প্রাঙ্গণের আনাচেকানাচে যেখানেই পতিত জায়গা রয়েছে সেখানেই শাকসবজির বাগান করতে হবে। তারই ধারাবাহিকতায় থানার চারিদিকে বিভিন্ন প্রকার শাকসবজি চাষের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গত ১৫ জুন তিনি কুলাউড়া থানায় যোগদান করার পরই নিজের বেতনের টাকায় থানার সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ করে যাচ্ছেন।

উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আব্দুল মোমিন বলেন, থানা চত্বরে সবজি চাষ- এটা খুবই ভালো উদ্যোগ। কৃষি বিভাগ থেকে তাদেরকে সবধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com