আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনেক সদস্য মাদক ব্যবসায় জড়িত : হানিফ

প্রকাশিত: ৭:২২ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২২

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনেক সদস্য মাদক ব্যবসায় জড়িত : হানিফ

 

প্রজন্ম ডেস্ক:

মাদক শুধু বাংলাদেশেই নয়, সমগ্র বিশ্বে মাদক সমস্যা রয়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর আইন তৈরি করতে হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অনেক সদস্য মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। যারা এ ধরনের অপরাধের সঙ্গে যুক্ত, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমির হলরুমে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া সদরের সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে কর্মশালায় হানিফ বলেন, যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ আমেরিকা, মিয়ানমার, ভারতসহ বিভিন্ন দেশ থেকে মাদকের ঢেউ বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছে। মাদকের বিরুদ্ধে ঘর থেকে আন্দোলন শুরু করতে হবে। মাদকের সঙ্গে অনেকেই জড়িত আছে। এসব তথ্য পুলিশকে দিলে তারা ধরে অনেককে আইনের আওতায় আনছে, অনেকে ছাড় পেয়ে যায়। গ্রেপ্তারের পর অনেকে সাত দিনের মধ্যে জামিনে বেরিয়ে যাচ্ছে। এগুলো আগে আমাদের পয়েন্ট আউট করতে হবে। আইন কঠোর না হলে মাদক নির্মূল বা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না।

শিক্ষাব্যবস্থার পরিবর্তন, সামাজিক আন্দোলন এবং কঠোর আইনের মাধ্যমে মাদক নির্মূল করতে পারি জানিয়ে হানিফ বলেন, অনেক শিক্ষার্থী মাদকে জড়িয়ে যাচ্ছে। কারিগরি শিক্ষাকে গুরুত্ব দিতে হবে, যাতে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হয়। তাহলে বেকার সমস্যা ও মাদক সমস্যা সমাধান করা সম্ভব হবে।

পুলিশ সুপার মো. খাইরুল আলম বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো বলতে হচ্ছে, ‘প্রত্যেক ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তোলো’ মাদকের বিরুদ্ধে। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। মাদক নির্মূলে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায়, মাদক, খুন, চুরি, ডাকাতিসহ সবধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে আমরা নিরলসভাবে কাজ করছি। প্রত্যন্ত এলাকায়ও পুলিশের প্রতিনিধি রয়েছে, তারাও কাজ করে যাচ্ছেন।

কুষ্টিয়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম সরোয়ার জাহান বাদশা বলেন, মাদক নির্মূল করতে হলে ঘর থেকে কাজ শুরু করতে হবে। নিজের সন্তানের দিকে খেয়াল রাখতে হবে অভিভাবকদের। বর্তমানে মাদক একটি বৈশ্বিক সমস্যা। মিয়ানমার, ভারতসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আমাদের বাংলাদেশে মাদক আসছে। মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এ ছাড়া প্রতিটি সরকারি হাসপাতালে মাদকাসক্তদের চিকিৎসার ব্যবস্থা চালু করতে হবে।

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার সহযোগিতায় কর্মশালায় কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের প্রশাসক হাজী রবিউল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, দৌলতপুর উপজেলার চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট এজাজ আহমেদ মামুন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাজারুল আলম সুমন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম বিপ্লবসহ প্রশাসন, সাংবাদিক ও দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আর্কাইভ

June 2022
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com