ইজিবাইকে বিয়ানীবাজার’র ৫শ’ যুবকের কর্মসংস্থান

প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২২

ইজিবাইকে বিয়ানীবাজার’র ৫শ’ যুবকের কর্মসংস্থান

 

স্টাফ রিপোর্টার:

 

খালি চোখে দেখলে ইজিবাইক পরিবেশসম্মত। কিন্তু এ দেখাটা ভুল। এই বাইকগুলোতে ব্যবহার করা ব্যাটারি মাটি, পানি, বায়ু ও মানবদেহের ক্ষতি করে। তবে ইজিবাইকগুলো বিয়ানীবাজার উপজেলার ৫শ’ যুবকের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি করেছে। আর এই ৫শ’ যুবকের সাথে সংশ্লিষ্ট আছে হাজারো পরিবার। যারা ইজিবাইকে ভর করে সাংসারিক চাহিদা মিটিয়ে নিচ্ছে।

 

এগুলোকে নীতিমালার মধ্যে নিয়ে এলে নেতিবাচক দিকগুলো থেকে রেহাই পাওয়া যাবে। বিয়ানীবাজার পৌরশহরে ইজিবাইক নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক নিবন্ধিত রিক্সাচালক শ্রমিক কল্যাণ সমিতির অধীনে।

 

সম্প্রতি সারা দেশে ব্যাটারিচালিত ৪০ লাখ ইজিবাইক বন্ধ করার নির্দেশনা দিয়েছে হাইকোর্ট। সঙ্গে আমদানি ও ক্রয়-বিক্রয়ের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। যার অন্যতম কারণ হলো অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার; পরিবেশ ও মানবদেহের ক্ষতি; রুট পারমিট না থাকা ও সড়কে দুর্ঘটনা সৃষ্টি করা।

 

পরিবেশ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইজিবাইকগুলো সরাসরি নয়, পরোক্ষভাবে পরিবেশের ক্ষতি করছে। এই বাইকগুলোতে যে ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়, সেগুলো সাধারণ পুরনো। আগে একবার ব্যবহার করা হয়েছে এমন। ওই ব্যাটারিগুলো মেরামত করে আবার ব্যবহারের উপযোগী করা হয়। ফলে নতুন ব্যাটারির চেয়ে এগুলোর মেয়াদ কম হয়। ৮-৯ মাস বা এক বছর পর আবার মেরামত করতে হয়। মূলত এই মেরামত করার সময়ই পরিবেশ ক্ষতির সম্মুখীন হয়। কারণ ব্যাটারির ভেতর যে অ্যাসিড থাকে সেগুলো ফেলে দেওয়া হয়। যা সরাসরি মাটি ও পানিতে চলে যায়। অন্যদিকে যখন ব্যাটারিগুলো ভেঙে পোড়ানো হয় তখন ব্যাটারিতে থাকা সিসা ও নাইট্রাস অক্সাইড বাতাসে চলে যায়। ফলে বাতাস দূষিত হয়ে পড়ে। ওই দূষণ ৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত ছড়িয়ে যেতে পারে। ওই এলাকার মধ্যে যারা নিশ্বাস নেন তাদের শরীরে ক্ষতিকর নাইট্রাস অক্সাইড ও সিসার গ্যাস প্রবেশ করে।

 

এ বিষয়ে পরিবেশ দূষণ নিয়ে কাজ করা বিয়ানীবাজার পরিবেশ আন্দোলন এর সদস্য সচিব শাহীন আলম হৃদয় বলেন, ব্যাটারির অ্যাসিড ও সিসা পানিতেও চলে যায়। সিসা পানিতে যখন যায় তখন, সেখান থেকে মাছের শরীরের যায়। সেখান থেকে আমাদের শরীরে আসবে। ওই পানিতে যদি শাকসবজি ধোঁয়া হয় তা হলে সেটার মাধ্যমেও শরীরে সিসা আসবে। আবার মাটিতে যখন যাবে তখন ফসলের মাধ্যমেও শরীরে আসবে।

 

বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত প্রধান ডা. আবু ইসহাক আজাদ বলেন, ব্যাটারি থেকে সিসা যদি পরিবেশে যায় তা হলে আমরা হয়তো আপাতদৃষ্টিতে জানতে পারি না, কিন্তু এটা প্রকৃতপক্ষে আমাদের খাদ্যচক্রে চলে আসে। শরীরে সিসা গ্রহণের মাত্রা শূন্য। কিন্তু যদি খাবারের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত শরীরে গ্রহণ করেন তা হলে চোখের সমস্যা হবে, শ্রবণশক্তি কমে যবে, কিডনি ও নার্ভ সিস্টেমে প্রভাব ফেলবে। নিশ্বাসের মাধ্যমে গ্রহণের ফলে ফুসফুসের ক্ষতি হতে পারে। এমনকি ক্যানসারও হতে পারে। মাল্টিপল অর্গান ফেইলরের কারণ হবে।

 

উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশী ইজিবাইক চলে কুড়ারবাজারের বৈরাগীবাজারে। কেবলমাত্র ওই এলাকায় ইজিবাইকের সংখ্যা দেড়শ’র উপরে। গত কয়েকমাস পূর্বে পৌরশহরসহ প্রত্যন্ত এলাকায় ইজিবাইক চলাচলে বাঁধা প্রদান করে অটোরিক্সা শ্রমিকরা। এ নিয়ে ব্যাপক উত্তেজনাও হয় সর্বত্র। পরবর্তীতে স্থানীয় প্রশাসন উভয়পক্ষকে ডেকে নিয়ে চলাচলের জন্য মৌখিক নীতিমালা প্রণয়ন করে দেয়। এরপর থেকে এখানে ইজিবাইকের ব্যবহার বেড়েছে। নয়াগ্রামের শাহাজান (৫৫) নামের এক লোক জানান, সারাদিন ক্ষেতে কাজ করার পর সন্ধ্যায় তিনি ইজিবাইক নিয়ে বের হন। রাত ১১-১২টা পর্যন্ত এটি চালিয়ে সংসারের খরচ করে বাড়ি ফিরেন। এতে কারো প্রতি হাত পাততে হয়না।

 

খোঁজ নিলে দেখা যাবে, ইজিবাইক তৈরি করতেই মূল খরচ। কিন্তু জ্বালানি খরচ খুবই কম। বাসায় হুক লাগিয়েও চার্জ করা যায়। সে জন্য দ্রুত এটা প্রসার লাভ করেছে।

 

নিম্নআয়ের মানুষের কর্মসংস্থানের বিষয়টি মাথায় রেখে ইজিবাইকগুলো চলতে দেয়ার অনুরোধ করেন বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের শিক্ষক জহির উদ্দিন।  তিনি বলেন, বেকারত্ব সমস্যর মধ্যে এখানে অনেকের কর্মসংস্থান হয়েছে। আর কঠিন পরিশ্রমের মাধ্যমে চালকরা যে রিকশা চালান ব্যাটারি লাগানোর ফলে সেটা সহজ হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আর্কাইভ

January 2022
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com