কমলগঞ্জে মণিপুরি রাস পরিদর্শণে ভারতীয় ডেপুটি হাই কমিমনার

প্রকাশিত: ৬:২৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০২১

কমলগঞ্জে মণিপুরি রাস পরিদর্শণে ভারতীয় ডেপুটি হাই কমিমনার

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে মণিপুরি রাস পরিদর্শনে ভারতীয় ডেপুটি হাই কমিশনার। শুক্রবার সন্ধ্যায় আদমপুরে মণিপুরি কালচারাল কমপ্লেক্সে মৈতৈ মণিপুরি সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শ্রী কৃষ্ণের মহারাসলীলা উৎসব পরিদর্শণ করেন ভারতীয় ডেপুটি হাই কমিশনার নিরজ কুমার জেশওয়াল।

 

মাধবপুর মণিপুরী ললিতকলা একাডেমির জোড়া মন্ডপ এলাকার বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরি সম্প্রদায়ের ১৭৯ তম মহারাসলীলা উৎসব স্থল পরিদর্শণ করে শিশু কিশোরদের অংশ গ্রহণে রাখাল নৃত্য হয়। রাত ১২টার পর থেকে ভোর পর্যন্ত মণিপুরী পোষাকে সজ্জিত তরুণীদের অংশগ্রহনে মণিপুরী মহারাসলীলা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে ঊষা লগ্নে সূর্যোদয়ের সাথে পরিসমাপ্তি ঘটে।

 

রাসোৎসবে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে হাজার হাজার ভক্তসহ দেশী-বিদেশী পর্যটকের ভিড়ে মুখরিত হয়েছিল উপজেলার মণিপুরী অঞ্চল মাধবপুর শিববাজারের জোড়া মন্ডপ ও আদমপুর মণিপুরী কালচারাল একাডেমী এলাকা। আদমপুরে মণিপুরি কালচারাল কমপ্লেক্সসহ দুটি পৃথক মন্ডপে মৈতৈ মণিপুরি সম্প্রদায়ের শিশু কিশোরদের অংশ গ্রহনে শ্রীকৃষ্ণের রাখাল নৃত্য পরিবেশন করা হয় সন্ধ্যা পর্যন্ত। মণিপুরি কালচারাল সেন্টার প্রাঙ্গণে রাত ৮টায় আলোচনা সভায় অতিতি হিসেবে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখেন ভারতীয় ডেপুটি হাই কমিশনার নিরজ কুমার জেশওয়াল।

 

ভারতীয় ডেপুটি হাই কমিশনার নিরজ কুমার জেশওয়াল বক্তব্য বলেন, মণিপুরি সম্প্রদায় মৈতৈ, বিষ্ণুপ্রিয়া ও মুসলিম মণিপুরিতে বিভক্ত হলেও আপনাদের সংস্কৃতি সমৃদ্ধ। ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি ও উৎসব উপভোগ করে আমি মুগ্ধ। এ উৎসবে নানান বর্ণ ও ধর্মের মানুষের উপস্থিতিতে সম্প্রীতি বজায় রাখছে। আপনাদের সমৃদ্ধ ও ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতি যত্নসহকারে লালন করুন। ভারত সরকার আগেও মনিপুরী সংস্কৃতি উন্নয়নে সহায়তা করেছে। এ সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com