বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে ইউনিক আইডি’র নিবন্ধন শুরু

প্রকাশিত: ২:৪৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২১

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে ইউনিক আইডি’র নিবন্ধন শুরু

 

স্টাফ রিপোর্টার :

 

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডির নিবন্ধন শুরু হয়েছে। বুধবার প্রথম দিন কলেজের বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থীরা নিবন্ধন করে। প্রায় আড়াই শ’ শিক্ষার্থী নিবন্ধন কার্যক্রমে অংশ নেয় বলে জানান কলেজের প্রভাষক মো. জহির উদ্দিন।

 

জানা যায়, বিগত দিনে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীর জন্য ইউনিক আইডি বা একক পরিচয়পত্র দেওয়ার পরিকল্পনা নেয় সরকার। কিন্তু করোনায় শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বিবেচনা করে স্থগিত করা হয় এ কার্যক্রম।

 

শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সূত্রে জানা গেছে, শিশু শ্রেণির (৫ বছর) থেকে শুরু করে দ্বাদশ শ্রেণির (১৭ বছর বয়স) পর্যন্ত সব শিক্ষার্থীদের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে এই ইউনিক আইডি। এই আইডিতে ১০ সংখ্যা বা ১৬ সংখ্যার শনাক্তকরণ নম্বর থাকবে এবং এসব তথ্য পরবর্তীতে শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে সমন্বয় করা হবে। এরপর থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরিতে আর আলাদাভাবে তথ্য সংগ্রহ করা হবে না।

দেশের সব শিক্ষার্থীর জন্য আইডি কার্ড প্রস্তুত করার লক্ষে ৬ষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্মনিবন্ধন অনলাইনভিত্তিক করার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। গত ৯ মে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারদের এ নির্দেশনা পাঠিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস)।

 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ৬ষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্ম সনদ নম্বর ও জন্ম তারিখ অনলাইনে রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়ের ডাটাবেজে যাচাই করার পর ইউনিক আইডি কার্ড দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে হাতে লেখা জন্ম সনদের নম্বর অনলাইনে ভেরিফাই করা যাবে না।

 

সেই নির্দেশনায় আরও বলা হয়, যেসব শিক্ষার্থীর জন্ম সনদ অনলাইনভিত্তিক করা নেই; তাদের পুনরায় অনলাইনে নিবন্ধন করার বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠান প্রধানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

অন্যদিকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতায় বাস্তবায়নাধীন প্রাথমিকে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের প্রোফাইল প্রণয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের প্রোফাইল তৈরি করা হবে এবং ইউনিক আইডি কার্ড দেওয়া হবে। এই ইউনিক আইডি কার্ড তৈরির জন্য প্রাথমিক পর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ছাড়াও সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সঙ্গে সংযুক্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের তথ্য জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের মাধ্যমে সংগ্রহ করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

 

 

ইউনিক আইডির জন্য যেসব তথ্য দিতে হবে শিক্ষার্থীদের

 

ইউনিক এ কার্ডে একজন শিক্ষার্থীকে ১৫ ধরনের তথ্য দিতে হবে। এর মধ্যে শিক্ষার্থীর নাম বাংলা ও ইংরেজিতে, জন্মনিবন্ধন, জন্ম তারিখ, জন্মস্থান, লিঙ্গ, জাতীয়তা, ধর্ম, অধ্যয়নরত শ্রেণি, শ্রেণির রোল নম্বর, বৈবাহিক অবস্থা, প্রতিবন্ধী (প্রযোজ্য হলে), রক্তের গ্রুপ, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী কি না, ইংরেজিতে মা ও বাবার নাম, জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর, মোবাইল, পেশাসহ জীবিত না মৃত তাও উল্লেখ করতে হবে। পিতা, মাতা অভিভাবক না হলে অভিভাবকের সঙ্গে শিক্ষার্থীর সম্পর্ক ও উল্লেখ করতে।

 

এছাড়া আরও উল্লেখ করতে হবে, পোস্টকোডসহ শিক্ষার্থীর পূর্ণ ঠিকানা। শিক্ষার্থী যদি সিটি কর্পোরেশনের মধ্যে বসবাস করে সে ক্ষেত্রে বাসার হোল্ডিং নম্বর, ওয়ার্ড মহল্লা, রাস্তার নাম নম্বর পোস্টঅফিস ও পোস্টকোড নম্বর।

এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর যাবতীয় তথ্য শ্রেণিশিক্ষক ও প্রধান শিক্ষক প্রত্যয়ন করবেন এবং প্রত্যয়নকারী শিক্ষকের নাম মোবাইল নম্বর ও এনআইডি নম্বর নির্ধারিত ছকে পূরণ করতে হবে।

 

বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. তারিকুল ইসলাম বলেন, সরকারের নির্দেশণা অনুযায়ী আমরা ইউনিক আইডির নিবন্ধন শুরু করেছি। পরবর্তী নির্দেশণা না দেয়া পর্যন্ত এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

 

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আর্কাইভ

October 2021
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com