প্রকাশনার ১৫ বছর

রেজি নং: চ/৫৭৫

২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৯শে মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সিলেটে একদিনে সড়কে ঝরলো ৫ প্রাণ

admin
প্রকাশিত জুলাই ২, ২০২৪, ১২:৪০ অপরাহ্ণ
সিলেটে একদিনে সড়কে ঝরলো ৫ প্রাণ

স্টাফ রিপোর্টার:
সিলেটে সম্প্রতি ভয়াবহ আকারে বেড়েছে সড়ক দুর্ঘটনা। গত ৩ দিন ধরেই সিলেট বিভাগে একের পর এক সড়ক দুর্ঘটনায় ঝরছে প্রাণ। সোমবার (১ জুলাই) একদিনেই সিলেট বিভাগে সড়কে ঝরেছে ৫টি তাজা প্রাণ।

স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু :
সোমবার সন্ধ্যায় সিলেট-ভোলাগঞ্জ বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে ওসমানী বিমানবন্দর সংলগ্ন ধোপাগুল এলাকায় ট্রাক ও প্রাইভেটকার সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছেন স্বামী-স্ত্রী। নিহতরা হলেন- মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি উপজেলার বড়ধামাই গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে আবদুস সবুর মিয়া (২৭) ও তার স্ত্রী রাহেনা আক্তার (২২)। দুর্ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন। তাদেরকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হতাহতদের সবাই প্রাইভেটকার যাত্রী ছিলেন।

শিশুসহ দুজন নিহত :
সোমবার রাত আটটার দিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের রাস্তা ভুনবীর ইউনিয়নের পাত্রীকুল এলাকায় ভুনবীর-শমসেরগঞ্জ সড়কে পার হওয়ার সময় ট্রাকের চাপায় শিশুসহ দুজন নিহত হয়েছেন। নিহত দুজন হলেন- ভুনবীর ইউনিয়নের আলী শারকুল গ্রামের দুদু মিয়ার মেয়ে মুন্নী (৭) ও তার খালা পেয়ারা বেগম (৪৫)। পেয়ারার বাড়ি একই ইউনিয়নের পাত্রীকুল গ্রামে।

জানা যায়, সোমবার রাত আটটার দিকে মুন্নী তাঁর খালার বাড়ি থেকে খালার সঙ্গে নিজ বাড়িতে আসছিল। খালার বাড়ির পাশের রাস্তা পার হওয়ার সময় বালু বহনের কাজে ব্যবহৃত একটি খালি ট্রাক তাঁদের চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই পেয়ারা বেগম মারা যান। মুন্নীকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেটে পাঠানো হয়। তবে নিয়ে যাওয়ার পথে সেও মারা যায়।

দক্ষিণ সুরমায় ১জন নিহত :
সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে ১জন নিহত হয়েছেন। সোমবার রাত ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমার সাতমাইল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম-ঠিকানা জানা যায় নি।

জানা যায়, গ্রিন লাইন সার্ভিসের একটি বাস সিলেট থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। রাত সাড়ে ১১টার দিকে দক্ষিণ সুরমার সাতমাইল এলাকায় আসামাত্র সিলেটগামী অটোরিকশার সাথে মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনায় অটোরিকশাটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং এর এক যাত্রী ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান। সংশ্লিষ্ট থানাগুলোর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুর্ঘটনা এবং মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন।