প্রকাশনার ১৫ বছর

রেজি নং: চ/৫৭৫

১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১১ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

শাহবাজপুরে কবরস্থানের মালিকানা নিয়ে উত্তেজনা, মামলা-পাল্টা মামলায় জর্জরিত গ্রামবাসী

admin
প্রকাশিত
শাহবাজপুরে কবরস্থানের মালিকানা নিয়ে উত্তেজনা, মামলা-পাল্টা মামলায় জর্জরিত গ্রামবাসী

স্টাফ রিপোর্টার:

সীমান্তবর্তী এলাকা শাহবাজপুরে কবরস্থানের মালিকানা ও দখল নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্ধ চরম আকার ধারণ করেছে। উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের সায়পুর গ্রামে গত কয়েকবছর থেকে চলমান দ্বন্ধে একের পর এক মামলা-পাল্টা মামলায় জর্জরিত গ্রামবাসী। কবরস্থানের আশপাশে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র স্থানীয় ক্যাম্প, পুলিশ ফাঁড়িসহ একাধিক সরকারি গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে।

জানা যায়, সায়পুর গ্রামের জেলা প্রশাসকের মালিকানাধীন ১নং খতিয়ানের ১০০৩নং দাগের ১৩.২৮ শতক জমির উপর কবরস্থান স্থাপন করেন এলাকাবাসী। প্রায় শতবছর পূর্ব থেকে এই কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হচ্ছে। বর্তমানে এখানে মরদেহ দাফনেও বাঁধা দিচ্ছে দখলদাররা। স্থানীয় ইউপি সদস্য মো: হেলাল উদ্দিন জানান, কবরস্থানে প্রায় হাজারখানেক মরদেহ দাফন করা হয়েছে। এরপরও এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী এখানে ঘরবাড়ি তৈরী করে বসতি স্থাপন করেছে। গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে অবৈধ দখলদারদের বাঁধা প্রদান করলে তারা উল্টো মামলা দিয়ে এলাকাবাসীকে হয়রানী করছে। ইতোমধ্যে গ্রামের সাধারণ মানুষের উপর দখলদারদের পক্ষ থেকে ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ অনেকেই কারাবরণ করেছেন। সরজমিন দেখা যায়, কবরস্থানে প্রবেশের রাস্থাও জোরপুর্বক দখলের মাধ্যমে বন্ধ করে দিয়েছে দখলদাররা। এসব বিষয় উল্লেখ করে মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ দাখিল করেছেন কবরস্থান পরিচালনা কমিটির সেক্রেটারী আব্দুল মন্নান মখন। যা বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।

শাহবাজপুর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন জানান, কবরস্থানের জায়গা জোরপূর্বক দখল করে বশির উদ্দিন, নজু বিবি, রিনা বেগম, শাহিন আহমদ ও আব্দুল মন্নানসহ কতিপয় ব্যক্তি বসতঘর তৈরী করেছেন। তারা দখল পোক্ত করতে বিভিন্ন চেষ্টা করছেন মর্মে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেছি। ইউপি চেয়ারম্যান জুবায়ের আহমদ লিটন জানান, সায়পুর কবরস্থানের জমি শুধু দখল নয়, কেনাবেচাও চলছে। তবে অবৈধ দখলদারদের পূনর্বাসন করে এখান থেকে উচ্ছেদ করা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন।