প্রকাশনার ১৫ বছর

রেজি নং: চ/৫৭৫

২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
১৭ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

ভারতের সঙ্গে টানাপোড়েন চাই না: ওবায়দুল কাদের

admin
প্রকাশিত
ভারতের সঙ্গে টানাপোড়েন চাই না: ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার:
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের ‘বাইলেটারেল রিলেশন’ খুব ভালো। ইতিবাচক সম্পর্ক আছে। এ সম্পর্কে কোনো টানাপোড়েন সৃষ্টি হোক সেটা আমরা চাই না। যদি কোনো সমস্যা হয় তাহলে আমরা আলাপ-আলোচনা করে সমাধান খুঁজে নেব। ভারতের সঙ্গে আমাদের ‘বাইলেটারাল’ আলোচনার সুযোগ আছে।

রোববার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলটির ২১তম জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত স্বেচ্ছাসেবক ও শৃঙ্খলা উপকমিটির সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এনআরসির বিষয়টি আমরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। ভারত আমাদের প্রতিবেশী দেশ। একটা সার্বভৌম দেশ, স্বাধীন দেশ। ভারতের পার্লামেন্টে যে আইন পাস হয়- লোকসভা কিংবা রাজ্যসভায়, সেটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এর প্রতিক্রিয়া কী হতে পারে, সে ব্যাপারে আমাদের বক্তব্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ভারতের হাইকমিশনারের মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হয়েছে। বিষয়টি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেখছে।

আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্ব প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের নেতৃত্বকে আমরা ‘এনার্জি’ ও ‘এক্সপেরিয়েন্স’র সমন্বয়ে নতুনভাবে, নতুন মডেলে ঢেলে সাজাতে চাই। এটাই আমাদের নেত্রীর (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) নির্দেশনা এবং প্রত্যাশা। সে লক্ষ্য নিয়েই কাজ চলছে।

এর আগে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত বৈঠকে ওবায়দুল কাদের জানান, আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের জন্য তারা প্রস্তুত। সম্মেলনে দেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। বিদেশি কোনো অতিথিকে দাওয়াত দেয়া হবে না। তবে বাংলাদেশে বিভিন্ন দূতাবাসের কর্মকর্তাদের দাওয়াত দেয়া হবে। মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে বিদেশি অতিথিদের দাওয়াত দেয়া হবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রায় দুই হাজার স্বেচ্ছাসেবক ও শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য কাজ করবে। সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত স্বেচ্ছাসেবক ও শৃঙ্খলা উপকমিটির সদস্যদের দায়িত্বশীলতার সঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এবারের সম্মেলনে সর্বকালের সর্ববৃহৎ উপস্থিতি থাকবে। আওয়ামী লীগের ৮১ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটির পরিধি ঠিক থাকবে। ১৮ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় গণভবনে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে কাউন্সিলের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে বলেও জানান তিনি। ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের জন্য তৈরি মঞ্চ ১৯ ডিসেম্বর পরিদর্শন করবেন ওবায়দুল কাদের। সভায় সভাপতির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন হবে ঐতিহাসিক সম্মেলন। দেশ ও দেশের বাইরে থেকে যারা সম্মেলনে আসবেন তারা একটি সুন্দর সম্মেলন উপভোগ করবেন। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের সঞ্চালনায় সভায় দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বক্তব্য দেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, উপদফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন।