প্রকাশনার ১৫ বছর

রেজি নং: চ/৫৭৫

২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

তাইজুলের অতিমানবীয় ক্যাচে ফিরলেন কোহলি

admin
প্রকাশিত
তাইজুলের অতিমানবীয় ক্যাচে ফিরলেন কোহলি

Virat Kohli (captain) of India bats during day 2 of the 2nd Test match between India and Bangladesh held at the Eden Gardens Stadium, Kolkata on the 23rd November 2019. (This test match is the first Day / Night Test match that India have taken part in) Photo by Deepak Malik / Sportzpics for BCCI

একে একে টপঅর্ডারের সবাই ফিরলেও শিকড় গেঁড়ে বসেছিলেন বিরাট কোহলি। রীতিমতো তাণ্ডব চালাচ্ছিলেন তিনি। অবশেষে তাকে থামালেন এবাদত হোসেন। অবশ্য এতে তার যতটা না কৃতিত্ব, এর চেয়েও বেশি ফিল্ডার তাইজুল ইসলামের। তার অতিমানবীয় ক্যাচ হয়ে ফিরেছেন ভারতীয় ব্যাটিং মাস্টার। ফেরার আগেও ১৮ চারে ১৩৬ রানের নান্দনিক ইনিংস খেলেন তিনি।

এর আগে ঐতিহ্যবাহী ইডেন গার্ডেনে গোলাপি বলে দিবারাত্রির ঐতিহাসিক টেস্টেও শতক হাঁকান কোহলি। তাইজুলের বলে ডাবলস নিয়ে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেন তিনি। এটি তার ক্যারিয়ারের ২৭তম সেঞ্চুরি।

এ নিয়ে একাধিক কীর্তি গড়েন কোহলি। প্রথম ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে দিনরাতের টেস্টে সেঞ্চুরি করার রেকর্ড করেন তিনি। বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথকে ছাড়িয়ে যান ভারতীয় ব্যাটিং মায়েস্ত্রো। ক্রিকেটের অভিজাত সংস্করণে অজি ব্যাটিং মাস্টারের সেঞ্চুরি ২৬টি।

পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রায়েম স্মিথ এবং অস্ট্রেলিয়ার অ্যালান বোর্ডারের কাতারে বসেন কোহলি। সাবেক প্রোটিয়া ও অজি ব্যাটিং কিংবদন্তিরও টেস্টে ২৭টি করে সেঞ্চুরি আছে। টাইগারদের বিপক্ষে তিন অংক ছোঁয়া ইনিংস খেলে তাদের ধরে ফেলেন টিম ইন্ডিয়া ক্যাপ্টেন।

ক্রিকেটের লংগার ভার্সনে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি (৫১) ভারতীয় ব্যাটিং ঈশ্বর শচীন টেন্ডুলকারের। স্বদেশী লিটল মাস্টারকে কত দ্রুত স্পর্শ করেন কোহলি এখন সেটাই দেখার। তবে ইডেনে তার কৃতিত্বে হতাশায় নিমজ্জিত বাংলাদেশ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৬ উকেটে ৩২৯ রান তুলেছে ভারত। এরই মধ্যে ২২৩ রানের লিড নিয়েছে তারা। ঋদ্ধিমান সাহা ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন ব্যাট করছেন।

প্রথম দিনের ৩ উইকেটে ১৭৪ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে ভারত। ওই দিনই ৬৮ রানের লিড নেয় তারা। সেটা যথাসম্ভব বাড়িয়ে নিতে কোহলি ৫৯ ও অজিঙ্কা রাহানে ২৩ রান নিয়ে নতুন দিনে ব্যাটিং শুরু করেন। সেই লক্ষ্যে দারুণ ব্যাট করেন তারা।

ক্রিজে জমে যান কোহলি-রাহানে। দারুণ মেলবন্ধন গড়ে ওঠে তাদের মধ্যে। ছোটান স্ট্রোকের ফুলঝুরি। তাতে দুরন্ত গতিতে ছুটে টিম ইন্ডিয়া। তবে হঠাৎ থেমে যান রাহানে। তাইজুলের ইসলামের শিকার হয়ে ফেরেন তিনি। ফেরার আগে তুলে নেন ক্যারিয়ারের ২২তম ফিফটি (৫১)। ফলে কোহলির সঙ্গে ভাঙে তার ৯৯ রানের ভয়ংকর জুটি।

এরপর রবীন্দ্র জাদেজাকে নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন কোহলি। ভালোই সঙ্গ পান তিনি। ফলে অবিচ্ছিন্ন থেকে লাঞ্চে যান তারা। তবে বিরতি থেকে ফিরেই ছিন্ন হন এ জুটি। মধ্যাহ্নভোজনের পরের ওভারেই আবু জায়েদ রাহীর শিকার হয়ে ফেরেন জাদেজা। তিনি করেন ১৩ রান।

এর আগে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১০৬ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। দলের ৮ ব্যাটসম্যানই ২ অংকের ঘর স্পর্শ করতে পারেননি। ০ মারেন তিন ‘ম’ মুশফিক-মুমিনুল-মিঠুন। সর্বোচ্চ ২৯ করেন ওপেনার সাদামান। আর রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে ফেরা লিটন করেন ২৪ রান। ভারতের হয়ে ইশান্ত শার্মা নেন সর্বাধিক ৫ উইকেট। উমেশ যাদব শিকার করেন ৩ উইকেট। আর মোহাম্মদ শামি ঝুলিতে ভরেন ২ উইকেট।

সংবাদটি শেয়ার করুন।