প্রকাশনার ১৫ বছর

রেজি নং: চ/৫৭৫

২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৯শে মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

admin
প্রকাশিত জুন ১৩, ২০২৪, ০১:৪৮ অপরাহ্ণ
খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

শাল্লা সংবাদদাতা:
সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলায় ৪ বছরের শিশুকে খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের ঘটনার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভোক্তভোগির পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

ঘটনাটি উপজেলার ১নং আটগাঁও ইউপির দৌলতপুর গ্রামের। অভিযুক্ত তোফাজ্জল হোসেন (২৫) একই গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

এ ব্যপারে শাল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান মিজান জানান, থানায় মামলা হয়েছে। আমরা আসামী ধরতে অভিযান পরিচালনা করছি।

স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে ঐ শিশুকে খেলায় পেয়ে তোফাজ্জল খাবার দিবে বলে ডেকে নেয়। পরে একটি ঘরে দরজা জানালা বন্ধ করে মুখে হাত চেপে শিশুকে ধর্ষণ করে। ঐ সময় শিশুর মা শিশুকে খোঁজাখুঁজি করলে সাথে থাকা অন্যান্য শিশুরা জানায় সে একটি ভেতরে শুয়ে আছে। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অভিযুক্ত তোফাজ্জল হোসেনের বাবা আব্দুর রহমান বলেন, আমি তাদের হাতে পায়ে ধরেও চেষ্টা করেছিলাম বিষয়টা ঘরোয়াভাবে বসে মীমাংসা করার জন্য। কিন্তু তারা কোনভাবেই মীমাংসায় সম্মতি হয় নাই।

ভিকটিমের চাচা জানান, শিশু বাচ্চার সাথে যে ঘটনা ঘটিয়েছে আমি তার সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। তবে দুঃখের বিষয় স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী লোক বিষয়টা ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা করছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য রাসেল মিয়া জানান, এরা দুজনেই একই গোষ্ঠীর চাচতো ভাইবোন। এই ঘটনা রফাদফা করতে চেষ্টা করা হয়েছিল কিন্তু আমি শুনি নাই। এখন থানায় মামলা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা: ওমর ফারুক বলেন, শিশুটিকে আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। যেহেতু আমাদের এখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা হয় না তাই উন্নত চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন।